ভারত এখন ডুবন্ত টাইটানিক

Spread the love

টাইটানিক ছবির সেই বেহালা বাদকদের কথা মনে আছে ? মৃত্যু নিশ্চিত জেনেও কিরকম নিশ্চল হয়ে বেহালা বাজিয়ে চলছিল ? আমরা অনেকে এখন ঠিক এমন একটা জায়গায় দাঁড়িয়ে আছি।

ধরুন করোনায় মৃত্যু হলনা। কোনভাবে বেঁচেই গেলাম। কিন্তু তারপর ? চারিদিকে হাহাকার। খাদ্য সংকট। কাজ নেই। ঘৃহ যুদ্ধ লেগে আছে। কর্মী ছাটাই। স্বল্প বেতনে কাজ করার জন্যে মানবিক আবেদন। আমরা অর্থনৈতিক দিক থেকে ফিরে গেলাম কয়েকশ বছর আগে !! ভেবেছেন ? যদি না ভেবে থাকেন, তাহলে ভাবা প্র‍্যাকটিস করুন !!

কত দিনে লকডাউন স্বাভাবিক হবে জানি না। সঠিক সময়ে কিছু সঠিক সিদ্ধান্ত না নেওয়ার কারনে আজকে আমরা এইখানে দাঁড়িয়ে !! প্রতিদিন আতঙ্কে মৃত্যুর প্রহর গুনছি। যারা বুঝতে পারছেন না এখনো, দয়া করে বোঝা শুরু করুন। চিন্তা করুন। তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ বলব কিনা জানি না, কিন্তু এই মহামারি আপনাকে এত সহজে প্রানে মারবে না। মৃত্যু ভয়ে আপনি মারা যাবেন। করোনা হয়ে সুস্থ হয়ে উঠা ব্যাক্তিরও আবার আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে। পৃথিবীবাসী আবার কবে করোনা মুক্ত হবে সত্যিই জানি না।

অকারনে খাদ্য অপচয় না করে, একটু বুঝে সুজে চলুন। বেচে থাকলে অনেক মাছ মাংস খাবার সময় পাবেন। শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ান। মনকে খুশি রাখুন। মৃত্যু আসলে হাসি মুখে বরন করার মত মানসিকতা তৈরি করুন। আজকের দিনে ডারউইন এর “Survival of the fittest” একটু ঝালিয়ে নিন আরেকবার। নিজেকে প্রস্তুত করুন, টাইটানিক ছবির ওই বেহালা বাদকদের মত। বাড়িতে থাকুন, আনন্দে থাকুন পরিবার প্রিয়জনদের সাথে।

জানেন আমরা কতটা ভাগ্যশালী, এমন অনেকে আছেন যারা এখনো পরিবার থেকে কতটা দুরে। আর কোনদিন দেখা হবে কিনা তাও জানে না !! নিজেকে ভাগ্যশালী ভাবতে শুরু করুন। সরকারি নিশেধাজ্ঞা মেনে চলুন। আশা করছি নতুন সকাল আসবে খুব তাড়াতাড়ি। এইসময় ধৈর্য্য রাখাটা বড় কথা।


Spread the love

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *